দেশের প্রথম ৬ লেনের মধুমতি সেতু উদ্বোধন আগামী কাল

0
244
ছয় লেনের মধুমতি সেতু।

কাশিয়ানী(গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি
দীর্ঘ দিনের প্রতিক্ষার অবসান হতে যাচ্ছে গোপালগঞ্জ ও নড়াইলবাসীর। স্বপ্নের ‘পদ্মা সেতু’র পর এবার উদ্বোধন হতে যাচ্ছে দেশের প্রথম ছয় লেনের মধুমতি সেতু।
মধুমতি সেতু উদ্বোধন করবেন প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা। কালনা তথা মধুমতি সেতু খুলে দেওয়া হচ্ছে সোমবার প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে এর উদ্বোধন করবেন বলে আশা করা হচ্ছে।
দেশের প্রথম ছয় লেনের মধুমতি সেতু উদ্বোধনের প্রহর গুনছেন এই অঞ্চলের দুই পারের মানুষ।
সেতুটি উমুক্ত হলে ঢাকার সাথে নড়াইল, যশোর, বেনাপোল, নোয়াপাড়া শিল্পনগর, সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দরসহ আশপাশের কয়েকটি জেলার যোগাযোগ সহজ হবে, কমবে দুরুত্ব।
আগামী কাল সোমবার উদ্বোধনের জন্য প্রস্তুত গোপালগঞ্জ ও নড়াইল সিমান্ত বর্তী কালনা ঘাট এলাকায় নবনির্মিত কালনা তথা মধুমতি সেতু। দক্ষিন পশ্চিম অঞ্চলের কটি মানুষের আর একটি দাবি পুরন হতে যাচ্ছে। অঞ্চলের মানুষে মধ্যে বৈছে খুশির যোয়ার। আগামী ১০ই অক্টোবর সোমবার ভিডিও কনফারেন্সেয়ের মাধ্যমে মধুমতি সেতু উদ্বোধন করবেন প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা। নড়াইলসহ দক্ষিন পশ্চিম অঞ্চলের যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজ করতে প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি ছিল কালনা পয়েন্টে সেতু নির্মানের। এরই প্রেক্ষিতে ২০১৫ সালের ২৪ জানুয়ারী কালনা সেতু নাম করনে ভিত্তিপ্রস্থ স্থাপন করেন। পরে এর নাম পরিবর্তন করে মধুমতি সেতু নাম করেন তিনি। এই সেতু নির্মানে যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজ হবে। পাশাপাশি লাববান হবে এই অঞ্চলের মানুষ। এদিকে দৃস্টি নন্দন আলোক সজ্জা মধুমতি সেতুর নান্দনিক স্থাপিত শৈলিতে আরো আর্কসনিয় করে তুলেছে যা দেখতে দুর দুরন্ত থেকে আসছে হাজার হাজার উৎসুক মানুষ।
কালনা সেতুর প্রকল্প ব্যবস্থাপক এবং সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর (সওজ) নড়াইলের নির্বাহী প্রকৌশলী আশরাফুজ্জামান বলেন, কালনা দেশের প্রথম ছয় লেনের সেতু। ধনুকের মতো বাঁকা সেতু এটি। সেতুটির দৈর্ঘ্য ৬৯০ মিটার এবং প্রস্থ ২৭ দশমিক ১ মিটার। উভয় পাশে ছয় লেনের সংযোগ সড়ক প্রায় সাড়ে ৪ কিলোমিটার। সেতু নির্মাণে মোট ব্যয় প্রায় ৯৬০ কোটি টাকা।
নড়াইল জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান জানান, সোমবার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দুপারে দুটা অনুষ্ঠান করা হবে। প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে এর উদ্বোধন করবেন বলে আশা করা হচ্ছে।
কাশিয়ানী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. মোক্তার হোসেন বলেন, সরকারের উন্নয়ন ধারাবাহিকতার বড় সাফল্য পদ্মা সেতু। সেই সঙ্গে মধুমতিসেতুও। সড়ক পথে যোগাযোগের ক্ষেত্রে এ অঞ্চলের মানুষের নদ-নদীর আর কোনো প্রতিবন্ধকতা রইল না। ফলে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে অবদান রাখবে মধুমতি সেতু। এজন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানাই।
ফেরিঘাটে অনেকেই বলেন, ফেরিঘাট মানেই ভোগান্তি। আশা করি মধুমতি সেতু চালু হলে সেই কষ্ট আর থাকবে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here